আসন্ন ঈদকে কেন্দ্র করে শার্শা-বেনাপোল সীমান্তে বেপরোয়া মাদক ব্যবসায়ীরা

12
জাহিদ হাসান, শার্শা   প্রতিনিধি :    আসন্ন ঈদুল ফিতরের ঈদকে সামনে রেখে শার্শা উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোতে সক্রিয় হয়ে উঠেছে মাদক ব্যবসায়ীরা, ভারত থেকে বিভিন্ন পন্থায় নিষিদ্ধ ফেন্সিডিল,গাঁজা,ইয়াবা চালান দেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করিয়ে একের পর এক মাদকের চালান আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে মাদক বহনকারী ও ব্যবসায়ী আটক হলেও থামছে না মাদক নিয়ন্ত্রণ। শার্শা উপজেলার পুটখালী, গোগা, অগ্রভুলাট, দৌলতপুর, গাতিপাড়া, সাদিপুর,রঘুনাথপুর,ঘিবা,ধান্যখোলা সীমান্ত দিয়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোঁখ ফাঁকি দিয়ে দেশের অভ্যান্তরে ঢুকে পড়ছে মাদকের চালান।
আসন ঈদুল ফিতরের ঈদকে টার্গেট করে মাদক ব্যবসায়ীরা দেশের অভ্যন্তরে ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে করে বিভিন্ন পন্থায় রাজধানী সহ দেশের জেলা শহরে গুলোতে পাঠাচ্ছে মাদকের বিভিন্ন চালান। করোনাকে তোয়াক্কা না করে, আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দিয়ে সীমান্ত পথে ভারত থেকে পাচার করে আনছে ফেনসিডিল-ইয়াবা গাঁজা সহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য। আর এমন এক মাদক পাচারের সময় শার্শা উপজেলায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মরত পুলিশ,বিজিবি,র‌্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থার হাতে আটক হয়েছে কোটি টাকার মাদক গত এক সপ্তাহে বিজিবি,র‌্যাব,শার্শা থানা ও বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশের হাতে প্রাইভেটকার,মটরসাইকেল,ভ্যান সহ হাতেনাতে অনেক আসামী আটক করেছেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। তবে স্থানীয় অনেকে জানান শার্শার পুটখালী, গোগা, অগ্রভুলাট, দৌলতপুর সীমান্ত দিয়ে মাদকের চালান বেশি ঢুকছে দেশের অভ্যন্তরে যার কারনে বাঁগআচড়া, জিবলীগাছি, রুদ্রপুর, গোগা কালিনী, শালকোনা, শিববাস, পাকশিয়া, লক্ষণপুর, গোগা এসব এলাকা হয়ে বেশি আসামী আটক করেছেন প্রসাশন।
স্থানীয়রা আরও অভিযোগ করে বলেন,করোনায় লকডাউনে যেখানে আমরা ঔষধ পর্যন্ত আনতে ঘরের বাহিরে বের হতে পারছি না, সেখানে প্রাইভেটকার,মটসাইকেল,ইঞ্জিন চালিত ভ্যান,পায়ে,কোমরে, করে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোঁখকে ফাঁকি দিয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা কিভাবে মাদক পাচার করে আনছে, তা আমাদের বোধগম্য নয়। আর এসব মাদক ব্যবসায়ীরা সীমান্তেই বা তারা কিভাবে পৌঁচ্ছাছে, আর কিভাবেই বা মাদক নিয়ে আসছে, তা সত্যিই রহস্যজনক ব্যাপার। তাই আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীকে আরও সজাগ থাকার আহবান জানান তারা।
এ বিষয়ে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম খান বলেন,চলমান লকডাউন ও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সৃষ্ট পরিস্থিথি মোকাবেলা সহ আসন্ন ঈদকে টার্গেট করে মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে আমার আমাদের সাধ্যমতো বিভিন্ন অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি এবং মাদকের চালান আটক করছি। আমাদের টিম সব সময় সক্রিয় ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

Comments are closed.

%d bloggers like this: