করোনার পাশাপাশি ডেঙ্গুর আশঙ্কা মশার কামড়ে অতিষ্ট মুন্সিগঞ্জবাসী

71

কাজী বিপ্লব হাসান : মুন্সিগঞ্জবাসী প্রচন্ড মশার কামড়ে অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। করোনা ভাইরাসের পাশাপাশি ডেঙ্গু জ¦রের আশঙ্গা করছে শহরবাসী।
বর্তমানে মুন্সিগঞ্জ শহরে মশার উপদ্রব এত বেড়ে গিয়েছে যে, দিনের বেলাতেও মশারী টানিয়ে ঘুমানো যাচ্ছে না। এমনকি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গিয়েও রেহায় পাওয়া যাচ্ছে না।
মুন্সিগঞ্জ পৌরসীভার মশক নিধন কার্যক্রমের আওতায় যে ঔষুধ ছড়ানো হয়। তাতে কার্যত কোনো ফলপ্রশ্রু হচ্ছে না। বরং মনে হচ্ছে যেন মশার ঔষুধ ছড়ানোর পড় মশাতো মড়ছেই না বরং মশককুল আরও উত্তেজিত হয়ে প্রচন্ড আক্রোষে আরও বেশী করে ঝাপিয়ে পড়ছে কামড়ানোর জন্য এক শ্রেণীর মশার কামড়ের পর সেই স্থানে গোটার মত ফুলে উঠছে এবং সেই জায়গায় প্রচন্ড চুলকানী শুরু হয়। একেকটি প্রচন্ড বড় মশা। দেখে যেনো মনে হয় এই মশারা পাড়লে মানুষকে উড়িয়ে নিয়ে গিয়ে ক্ষেতে চায়। আরেক শ্রেনীর ছোট মশার কামড়ে কোনো আলাপ পাওয়া যায় না। এরা নিঃশব্দে রক্ত চুসে খায়। মশার কয়েল জালিয়েও কোনো লাভ হয় না। বরং এইসব মশককুল এত ধূর্ত যে কেমন করে যেনো মশারীর ভেতরে ঢুকে পড়ে। মনে হচ্ছে যেন মশার কয়েলেও ভেজাল। অথবা মশককুল কয়েলপ্রুফ।
শুধু শহরের রাস্তাই নয় আশেপাশের গলিতেও মশার ঔষুধ ছড়ানোর ব্যবস্থাগ্রহণ করাসহ ঔষুদে কোন ভেজাল রয়েছে কিনা তাও দেখার প্রয়োজন বলে পৌরবাসী অভিমত প্রকাশ করেছে। তারা আরও জানান করোনা ভাইরাসের পর আবার ডেঙ্গু দেখা দিতে পারে।

Comments are closed.

%d bloggers like this: