কাবুলে ড্রোন হামলার দোষ স্বীকার যুক্তরাষ্ট্রের

কাবুলে ড্রোন হামলার দোষ স্বীকার যুক্তরাষ্ট্রের

4

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  :  তালেবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার পর কাবুলে ড্রোন হামলা চালিয়ে দশ সাধারণ আফগানকে হত্যার বিষয় স্বীকার করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ওই হামলায় নিহতদের মধ্যে ছিল সাত শিশুও। এই ঘটনায় দু:খ প্রকাশ করেছে দেশটি। খবর রয়টার্সের

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ডের কমান্ডার জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘ওই হামলা একটি দুঃখজনক ঘটনা। ভুল করে সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েছে। তার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।’

তিনি জানান, হামলায় যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের পরিবারকে কীভাবে ক্ষতিপূরণ দেওয়া যায় সেই বিষয়ে আলোচনা করছে পেন্টাগন।

অন্যদিকে মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব লয়েড অস্টিন বলেন, ‘ড্রোন হামলায় যারা মারা গিয়েছেন তাদের পরিবারের সদস্যদের গভীর সহানুভূতি জানাই। আমরা ক্ষমাপ্রার্থী। এই ভুল থেকে ভবিষ্যতে আমরা শিক্ষা নেব।’

কীভাবে এই ভুল হয়েছে সে বিষয়ে কেনেথ বলেন, ‘আমাদের কাছে খবর ছিল সাদা রঙের একটি গাড়িতে করে জঙ্গিরা যাচ্ছে। আমরা গাড়ির গতিবিধি লক্ষ্য করে হামলা চালাই। কিন্তু পরে তদন্ত করতে গিয়ে বুঝতে পারি আমাদের কাছে ভুল খবর ছিল।’

গত ২৯ আগস্ট সন্ধ্যায় কাবুলে একটি গাড়ি লক্ষ্য করে ড্রোন হামলা চালায় মার্কিন সেনারা। তারা দাবি করে ওই গাড়িতে করে নাশকতার জন্য যাচ্ছিল আইএস জঙ্গিরা। কিন্তু হামলার পর কাবুলের বাসিন্দা জেমারি আহমদির মেয়ে সামিয়া আহমদি দাবি করেন, এই হামলায় তাদের পরিবারের ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

Comments are closed.

%d bloggers like this: