গজারিয়ায় বাবা-মা ও সহোদর দুই ভাইসহ ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

গজারিয়ায় বাবা-মা ও সহোদর দুই ভাইসহ ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

17
তুষার আহাম্মেদ- মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় ভবের চর ইউনিয়ন আলিপুরা গ্রামে বাবা মা ও দুই সহোদর ভাই এবং বড় ভাইয়ের স্ত্রী সহ ৫ জনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ।
বুধবার সকাল ১১ ঘটিকায় আলিপুরা গ্রামে মুজিবুর রহমানের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটেছে।
আহতরা হলেন মুজিবুর রহমান (৬৮),মুজিবুর রহমানের স্ত্রী আলীমন নেতা, ছেলে হানিফ , জয়নাব আলী, ও হানিফের স্ত্রী শাহিনুর বেগম।
আহত মুজিবুর রহমান ও মুজিবুর রহমানের স্ত্রী জানান ছেলে মোশাররফ এবং মোশারফের শেলক রিয়াজ, শশুর আশরাফ আলী কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে অন্য বাড়ি থেকে এসে আমাদের উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালায়।
ছেলে মোশাররফ আমাদের পরিবারের খুটিনাটি বিষয় নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে সংবাদ দিয়ে তার শশুর ও শেলকদের এনে আমাদের উপর একাধিকবার অত্যাচার এবং অপমানিত করেছে । বুধবার ২৫ আগস্ট সকালে মোশারফের নির্মাণাধীন ভবনের শ্রমিক কাজ করা অবস্থায় মোশাররফ ও আমার দুই ছেলের সাথে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে মোশারফ সহ হামলা চালিয়ে আমাদেরকে আহত করেছে।
আহত পরিবারের পূর্বপাশের বাড়ি মালিক কাশেম মিয়া প্রত্যক্ষদর্শী দেলোয়ার জানান আহত মজিবুর রহমানের তিন ছেলের মধ্যে মোশারফ শ্বশুরবাড়ির আত্মীয় স্বজন নিয়ে তার বাবা-মা ও ভাইদের উপর জোরপূর্বক একাধিকবার আক্রমণ চালিয়েছে। মোশাররফের সংবাদ পেলেই তার শশুর এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজন এসে তাদের পরিবারের উপর অত্যাচার করে।
বিবাদমান বাড়িতে নির্মাণাধীন কাজে নিয়োজিত কাউসার ও শাকিল জানান বাড়ির বাহিরে কি হয়েছে বিষয়টি জানা নাই। কাজ করা অবস্থায় হানিফ ,জয়নাব আলী পাশে দাঁড়ানো ছিল। মুশারফের শালা বাড়িতে উপস্থিত হওয়ার পর মারামারি শুরু হয়ে যায়।
মোশারফের শশুর আশরাফ আলী জানান আমার ছেলে রিয়াজ বেই মজিবুর রহমানের বাড়িতে আসলে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ছেলে রিয়াজ কে মারধর করার চেষ্টা করলে এই ঘটনা ঘটে। মারামারির সময় ঘটনাস্থলে আমি উপস্থিত ছিলাম না। গজারিয়া থানা এস আই আনিস জানান অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে, মারামারির ঘটনাটি সত্য।

Comments are closed.

%d bloggers like this: