তিনি বললেন, পাশ করি বা না করি আজীবন মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে কাজ করে যাবো

79

এক জন ওয়ার্ড কাউন্সিলরের সৌজন্য সাক্ষাৎ
কাজী বিপ্লব হাসান ঃ আসন্ন মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার (২০২১) নির্বাচনে এবার ১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপার্থী হয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো: খাইরুল ইসলাম। তিনি ব্যবসার পাশাপাশি অনেক সমাজ সেবা মূলক কাজেও জড়িত আছেন। মাদকমুক্ত সমাজের জন্য তিনি বিগত ১০ বছর যাবৎ কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বললেন, পাশ করি বা না করি আজীবন মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে কাজ করে যাবো। বাল্য বিবাহ রোধেও তিনি বেশ সচেতন। চোখের সামনে দেখা নিজ এলাকার অনেকগুলো বাল্যবিবাহ তিনি ঠেকিয়েছেন এবং এ বেপারে তিনি এলাকাবাসীকেও সচেতন করার চেষ্টা করেন। এলাকার কোনো দরিদ্র মানুষ মারা গেলে যার দাফন করার সামর্থ নেই সেই দাফনের ব্যবস্থাও তিনি নিজ উপার্জন থেকে করেন। এটি একটি মহৎ গুন বলা যায়। খাইরুল ইসলাম ২৮ বছর যাবৎ জেলা ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক পদে কাজ করে যাচ্ছেন। একজন ব্যবসায়ী হয়ে এবার কেনো ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হলেন? এর উত্তরে তিনি বলেন, আমাদের ১নং ওয়ার্ডের অনেকগুলো সমস্যা আছে যা আমাদের চোখে পড়ে কিন্তু এর সমাধান হচ্ছে না। তাই আশা রাখি আমি পাশ করলে সেই সমস্যাগুলোর সমাধান করার চেষ্টা করবো। এলাকার জনগন আপনাকে কেমন সমর্থন দিচ্ছে? এর উত্তরে তিনি বলেন, মাঠপাড়া পঞ্চায়েত কমিটি এবং দক্ষিণ কোর্টগাও পঞ্চায়েত কমিটির পূর্ণ সমর্থনেই এবার আমি নির্বাচনের প্রার্থী হয়েছি। সাক্ষাৎকালে তিনি আরও জানান, আমি কোন রাজনৈতিক প্রভাব দ্বারা প্রভাবিত নই। শুধু নিজের ওয়ার্ডের উন্নয়ন করা। তথা সমাজথেকে মাদকমুক্ত করা, বাল্যবিবাহ রোধ করা, যুবকদের খেলাধুলায় উৎসাহিত করা, সৎ পথে চলার নির্দেশনা দেয়ার জন্যই আমি এবার কাউন্সিলর পদপ্রার্থী হয়েছি। প্রার্থী হয়ে পাশ করলে এলাকার কোন কাজটিতে আগে নজর দিবেন? এর উত্তরে তিনি বলেন, মাঠপাড়ার অনেকগুলো ছোট রাস্তা আছে, যা সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমে থাকে। ড্রেন না থাকার কারণে এবং রাস্তা ভাঙ্গা হওয়ায় সেখান দিয়ে যাতায়াত করা, বিশেষ করে বর্ষাকালে যাতায়াত খুবই কষ্টকর হয়। প্রথমেই সেই রাস্তাগুলো নির্মাণ করার চেষ্টা করবো এবং ড্রেন তৈরি করে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করবো। এবারের নির্বাচন কেমন হবে বলে মনে করেন? এর উত্তরে তিনি বললেন, আশা করছি এবারের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবেই সম্পন্ন হবে। জনগণ নিজ হাতেই নিজ ভোট দিয়ে প্রার্থীদের জয়ী করতে পারবেন। সবশেষে তিনি সুষ্ঠু ভোটের মাধ্যমে ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে জয় লাভ করার আশা ব্যক্ত করেন।

Comments are closed.

%d bloggers like this: