ফরাসি সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ ও গনমিছিল করেন জুম্মার নামাযের পরে মুন্সীগঞ্জের সমস্ত মুসলমানরা।

কাজী বিপ্লব হাসান:ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে বিভিন্ন ভবনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স) এর বিতর্কিত ১২টি ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের ঘটনায় বিশ্বজুড়ে তোলপাড় চলছে। মুসলিমরা মনে করেন, মহানবী (স) কে অবমাননা করে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে ফরাসি সরকার। এতে করে ইসলাম ধর্ম ও মুসলিম জাতির সাথে পাশ্চাত্যের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর হিংসা-বিদ্বেষ আবারো স্পষ্ট হয়েছে। সম্প্রতি ফ্রান্সের একটি স্কুলে শিক্ষার্থীদের মহানবী সা:-এর ব্যঙ্গচিত্র দেখান ইসলামবিদ্বেষী স্যামুয়েল পার্টি নামের এক শিক্ষক। এরপর আবদুল্লাখ আনজোরভ নামের বিক্ষুব্ধ এক চেচেন যুবক তাকে গলা কেটে হত্যা করে। এই যুবককে পুলিশ গুলি করে মেরে ফেলে। ঘটনাটি বাকস্বাধীনতার ওপর আঘাত উল্লেখ করে রাষ্ট্রীয়ভাবে মুহাম্মদ (স) এর ব্যঙ্গচিত্র প্রচার করে ফরাসি সরকার। ওই ঘটনা নিয়ে ফ্রান্সে ব্যাপক উত্তেজনা চলছে। চালানো হচ্ছে ইসলাম ও মুসলিমবিরোধী প্রচারনায়। মহানবী (স) কে অবমাননা করে ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ করেছে ফরাসি সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ সমাবেশ ও গনমিছিল করেন জুম্মার নামাযের পরে মুন্সীগঞ্জের সমস্ত মুসলমানরা।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.