“ভাঙ্গা রাস্তা, ভোগান্তিতে সাধারণ জনগন

"ভাঙ্গা রাস্তা, ভোগান্তিতে সাধারণ জনগন

4
 তুষার আহাম্মেদ- জামালদী বাস স্টান হতে টেংগারচর যাওয়ার পথে প্রায়  ১.৫  কিলোমিটার  রাস্তাটি বেহাল দশার জন্য চলাচলের বিঘ্ন ঘটছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই অনেক জায়গায় জলাবদ্ধতা দেখা যায়। ভাঙ্গা রাস্তায় ছোট গাড়ি চলাচল করা ধীরে ধীরে অসম্ভব হয়ে পড়ছে। ফলে আশেপাশের এলাকাবাসীকে চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।
এই ভাঙ্গা রাস্তা দিয়েই প্রতিদিন ঝুকি নিয়েই মালবাহী ট্রাক, পিকাপ, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ইজি বাইকসহ বিভিন্ন ধরনের যানবাহন চলাচল করে থাকে। ভাঙ্গা যায়গা গুলোতে প্রায়ই ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। যার কারনে এলাকাবাসী রাস্তা মেরামতের দাবি যানাচ্ছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, জামালদী বাস স্টান থেকে টেংগারচর, উওর শাহপুর, মিরেরগাঁও যাওয়ার যে রাস্তাটি সেটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পরছে। রাস্তাটি বড়ভাটেরচার ব্রিজের সামনের ও টেংগারচর এবং উওর শাহপুর সিএনজি স্টান সামনেও ভাঙ্গা গর্ত রয়েছে, এতে শিক্ষক শিক্ষার্থী ও সাধারণ জনগণের অনেক ভোগান্তিতে পরতে হচ্ছে।
নিমাই নিমাই চন্দ্র রায় বলেন এই রাস্তাদিয়ে গর্ভবতী মায়েরা যখন হসপিটালে যায় তখন তাদের ভোগান্তির শেষ হয়না পথিমধ্যে তাদের বাচ্চা জন্ম হয়ে যায়।
জামালদী বাস স্টান এর ব্যবসায়ী  রাসেল হোসেন বলেন, জামালদী থেকে টেংগারচর  যাওয়ার রাস্তা এতটাই খারাপ যে  সেখানে গর্ত আর গাড়ি চালাতে গিয়েই ঘটে যায় দুর্ঘটনা। তাই সাধারণ জনগণ হিসেবে আমিও এই রাস্তা মেরামতের দাবি যানাচ্ছি।
সিএনজি  চালক মোঃ সুমন মিয়া বলেন, জামালদী থেকে টেংগারচর  যাওয়ার প্রধান যে সড়কটি এটা এতটাই খারাপ যে বিভিন্ন স্থানে ছোট বড় গর্তের কারনে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি আরো বলেন, এসব রাস্তা দিয়ে গাড়ি চালাতে গিয়ে গাড়িও খুব দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। তিনি ভাঙ্গা রাস্তা দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।
 এলাকাবাসী ও শিক্ষক শিক্ষার্থী সবাই দুর্ভোগ লাঘবের জন্য এসব রাস্তা দ্রুত মেরামতের দাবি যানিয়েছেন।

Comments are closed.

%d bloggers like this: