মুন্সিগঞ্জে মোবাইল কোর্ট ১৩ জনের ৫৮ হাজার টাকা জরিমানা, এক জনের জেল

38

কাজী বিপ্লব হাসান: আজ ১৯ অক্টোবর ২০১৯ শনিবার সকাল সাড়ে নয়টা হতে দুপুর ২টা পর্যন্ত মুক্তারপুর ট্রাফিক মোড়, মুন্সিরহাট ও অন্যান্য হাটবাজারে মুন্সিগঞ্জ সদর থানা পুলিশ ও ট্রাফিক পুলিশের আন্তরিক সহোযোগিতায় ব্যপক তল্লাশী অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ইলিশ মাছ দখলে রেখে পরিবহনরত অবস্থায় দফায় দফায় আটক হয় ১৪ জন।  মুন্সিগঞ্জ সদরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) জনাব হ্যাপী দাস কর্তৃক পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে আটককৃত এলাহীনগর, মদনগঞ্জের মোঃ জাকির হোসেন(৪৫),  ঘুনিপাড়া, নাগরপুরের শামীমা আক্তার (৪৪),  পানাম, মীরকাদিমের মোঃ মিলন (২৫), নওয়াপাড়া, লৌহজং এর সর্দার নাজমুল(৩৫), রাধানগর, ফতুল্লার আজিজুল হক (৫৬) ও মাসুদা বেগম (৪৮), দঃ চরমশুরা, মুন্সিগঞ্জ সদরের মোঃ নুর ইসলাম (৭০), চরজানাজা, শিবচরের ফাহিমা বেগম(৪৫), দীঘির পাড়, টংগিবাড়ীর মোঃ হাফিজ সিদ্দিকী (৪৯)  নামে নয় জনের প্রত্যেককে ৫০০০/- করে মোট ৪৫০০০/-,   ব্রজেরহাটি, সিরাজদিখানের মোঃ ছালাম হোসেন গাজী (৪২) ও দঃ ইসলামপুর, মুন্সিগঞ্জ সদরের মোফাজ্জল হোসেন (৪৭) নামে দুজনের উভয়কে ৪৫০০/- করে মোট ৯০০০/-, শিলই, মুন্সিগঞ্জ সদরের সাহিদা বেগম(৬০) ও চরডুমুরিয়া, মুন্সিগঞ্জ সদরের ঝর্ণা বেগম(৩২) নামে দুজনকে ২০০০/- করে মোট ৪০০০/- জরিমানা আদায় করা হয়।  এছাড়াও নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ থানার চানপারার কুলসুম বেগম(৩২) নামে একজনের ০৩ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়। আটককৃত প্রায় ১৫০ কেজি ইলিশ স্থানীয় এতিমখানা ও দুঃস্থ মানুষের মধ্যে বিতরণ করা হয়। উল্লেখ্য, সরকার ০৯-৩০ অক্টোবর ২০১৯ ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা, পরিবহন, ক্রয়-বিক্রয়, দখলে রাখা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। আটককৃত ব্যক্তিরা সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নিষিদ্ধ মৌসুমে ইলিশ মাছ ক্রয়, দখল ও পরিবহন করে মৎস্য রক্ষা ও সংরক্ষণ আইন-১৯৫০ এর ৪ ধারা লংঘন করতঃ একই আইনের ৫(১) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছে। অভিযান ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে আরো উপস্থিত ছিলেন মুন্সিগঞ্জ সদরের সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার মোঃ আবুল কালাম আজাদ, মুন্সিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব আনিছুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জনাব সালাউদ্দিন গাজী, জেলা ট্রাফিক পুলিশ বিভাগের  সার্জেন্ট অব পুলিশ নীহার রঞ্জন বাগচী, সদর থানার এসআই জনাব বেলাল ও সঙ্গীয় ফোর্স।

Comments are closed.

%d bloggers like this: