মুন্সীগঞ্জের পূর্ব-শিলমন্দিতে (A.k-২২)পয়েন্টের সট রাইফেলসহ নুর মোঃ গ্রেফতার 

38

তুষার আহাম্মেদ: মুন্সীগঞ্জ ডিবি পুলিশ গতকাল রবিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে এক বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন। এ অভিযানের সময় মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মুন্সীগঞ্জ পৌরসভাস্থ পূর্ব শিলমন্দি গ্রামের জসিম নগর এলাকার জনৈক আজিম পাইক এর বাগানের জমির মাটির নিচ থেকে গ্রেফতারকৃত আসামি নুর মোহাম্মদ (৩৫) এর দেখানো ও নিজ হাতে বের করে দেওয়া সময় মতে একটি কালো রঙের ইন্ডিয়ার তৈরি পয়েন্ট A.k-২২ পয়েন্টের সট রাইফেল গান যাহা বাট সহ লম্বা ১০ ইঞ্চি উদ্ধার করা হয়।

নূর মোহাম্মদ এর পিতার নাম হচ্ছে ইব্রাহিম খলিল। গ্রেফতারকৃত আসামি গত বছরের ১৮ মে ২০২০ তারিখে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মুন্সীগঞ্জ শহর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান এর শিলমন্দিস্থ বাড়ির সামনে একটি মারামারির ঘটনায় অংশ নেয়। সেদিনের ঘটনায় নূর মোহাম্মদসহ চারজন যুবক অস্ত্রসহ প্রকাশ্যে দিবালোকে হিন্দি সিনেমা ষ্টাইলে মারামারিতে অংশ গ্রহন করে ।

এ সময় তারা একাধিক গুলি বর্ষণ করে। ঐ ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ সদর থানার মামলা ১৮ মে ২০২০ তারিখে মামলা দায়ের করা হয়। এ মামলা নাম্বার হচ্ছে ২০। সেই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি ছিল নুর মোহাম্মদ। তাকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলা এলাকা থেকে মুন্সীগঞ্জ ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে সে পূর্বের মামলার ঘটনায় জড়িত থাকার বিষয়ে শিকার করেন এবং তার অপরাপর সহযোগী আসামিদের নাম প্রকাশ করেও ব্যবহৃত অস্ত্র সম্পর্কে পুলিশের কাছে বিস্তারিত বিবরণ দেয়। পরবর্তীতে জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায়, তার একটি অস্ত্র শিলমন্দি এলাকায় জসিম নগরে একটি বাগানের মধ্যে মাটির নিচে পুঁতে রেখেছে ।

তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক মুন্সীগঞ্জ ডিবি পুলিশের একটি টিম আসামিসহ এলাকার স্থানীয় লোকজনদের সহায়তায় ঘটনাস্থলে গেলে গ্রেফতারকৃত আসামি নুর মোহাম্মদ নিজ হাতে মাটির নিচ থেকে তার রেখে দেওয়া অস্ত্রটি বের করে দেয় ।

সেই মোতাবেক তার কাছ থেকে অস্ত্র উদ্ধার পূর্বক ডিবি পুলিশ অস্ত্রটি হেফাজতে নেয়। এই সংক্রান্তে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় একটি নিয়মিত অস্ত্র মামলা রুজু করা হয়েছে। পূর্বের মামলার অপর আসামি খোকন (২৮)। তার পিতার নাম হচ্ছে নূর হোসেন। তার গ্রামের বাড়ি হচ্ছে পূর্ব শিলমন্দিতে। ইতোপূর্বে ৮ জুলাই ২০২০ তারিখে খোকনের জবানবন্দি মোতাবেক তার কাছে থাকা ঘটনার সময় ব্যবহৃত একটি একনলা বন্দুক উদ্ধার করা হয়েছে। এই সংক্রান্ত অপর একটি অস্ত্র মামলা মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় রুজু করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামি নূর মোহাম্মদ পূর্বের মামলার ঘটনার বিবরণ, তার অপরাপর সহযোগীদের নাম এবং ব্যবহৃত অস্ত্র সংক্রান্তে সকল বিষয় স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে কার্যবিধির ১৬৪ ধারা মোতাবেক দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন। সেই মোতাবেক তার বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। বর্তমানে গ্রেফতারকৃত আসামি নূর মোহাম্মদকে বিজ্ঞ আদালত জেলহাজতে প্রেরণ করেছেন। গ্রেফতারকৃত আসামি নূর মোহাম্মদ বর্তমানে মুন্সীগঞ্জ জেলা কারাগারে আটক আছেন।

আসামি নূর মোহাম্মদ পূর্বের মামলার ঘটনা ,বর্তমান অস্ত্র মামলার ঘটনা,তার অপরাপর সহযোগী এবং এলাকার অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের বিষয়ে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মুন্সীগঞ্জ ডিবি পুলিশকে প্রদান করেছেন। যা তদন্তপূর্বক যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। ঘটনায় ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার ও পলাতক আসামিদেরকে গ্রেফতার করার জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

Comments are closed.

%d bloggers like this: