মুন্সীগঞ্জে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে পৌর-মেয়রসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা

25

মুন্সীগঞ্জে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে পৌর-মেয়রসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা

তুষার আহাম্মেদ- মুন্সীগঞ্জে সপ্তম দিনে কঠোর লকডাউনের বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে একযোগে মাঠে নেমেছেন পৌর মেয়র, সেনা বাহিনী,নৌ বাহিনী, ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ,আনসার সহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক সদস্যরা। মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে  সরেজমিনে দেখা যাচ্ছে পৌর মেয়র হাজী মোঃ ফয়সাল বিপ্লব এর ব্যাপক করোনা বিরোধী অভিযান।  পৌর মেয়রসহ ১২ জন কাউন্সিলর নিয়ে মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে বিভক্ত হয়ে জন সাধারনকে সর্তকতা মূলক আলোচনা ও মাইকিং এর মাধ্যমে সর্তক হওয়ার পরামর্শ দেন পৌর মেয়র হাজী মোঃ ফয়সাল বিপ্লব । মুন্সিগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় দেখা গেছে একাধিক  ব্যারিকেড।

তবুও এরই মধ্যে সরকারের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে কেউ কেই ঘর থেকে রাস্তায় বের হয়েছেন। দু-এক জনের মুখে এ সময় মাস্ক দেখা যায়নি। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করছে সাধারন মানুষ।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের নজর এড়িয়ে অনেকেই নানাভাবে রাস্তার অলিতে গলিতে চলাচল করেছে। এরমধ্যে সিপাই পাড়া, রিকাবী বাজার, মুক্তারপুরের বিভিন্ন সড়ক গুলোতে ভ্যান, মোটর সাইকেল ও ট্রলি,অটো, মিশুক চলতে দেখা গেছে।

তবে আগের তুলনায় আজ বুধবার দিন অনেকটাই কম ছিল।

ইদ্রাকপুর,কোর্টগাঁও,মাঠপাড়া,মালপাড়া,জমিদারপাড়া,দেওভোগ,ইসলামপুর,খালিস্ট, বাগমাহমুদালির মহল্লা দিয়ে ধুমতেরেক্কা মিশুক ও অটো চলতে দেখা গেছে। প্রধান সড়কে পুলিশের কড়া পাহাড়ার কারণে এ পথ বেছে নিয়েছে গাড়ীর চালকরা।

তবে শহরের অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ ছিল। কিন্তু কিছু হোটেলে মানুষকে বসিয়ে খাওয়া দাওয়ার মধ্যে হোটেলে বেচাকেনা করতে দেখা গেছে। লকডাউনে জরুরি সেবা প্রতিষ্ঠান গুলো খোলা রয়েছে। বন্ধ রয়েছে সকল প্রকার গনপরিবহন।

বুধবার সকাল ১১ টার পর থেকে পৌর মেয়র, ম্যাজিস্ট্রেট, সেনা বাহিনী, পুলিশসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সকল সদস্যরা মুন্সীগঞ্জ শহর, সিপাইপাড়া, মুক্তারপুর, রিকাবী বাজারের প্রায় সব সড়কেই গাড়ীর বহর নিয়ে মহড়া দেয়।

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র হাজী মোঃ ফয়সাল বিপ্লব জানান, সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে মুন্সীগঞ্জবাসীকে ঘর থেকে বাইরে না বের হওয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে রাস্তায় চলাচল করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়।

Comments are closed.

%d bloggers like this: