মুন্সীগঞ্জে বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণ,পাল্টা-পাল্টি কমিটি গঠন

মুন্সীগঞ্জে বিএনপি'র আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণ,পাল্টা-পাল্টি কমিটি গঠন

0

তুষার আহাম্মেদ- জেলা বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটিকে বাতিলের দাবী জানিয়ে পাল্টা আহবায়ক কমিটি ঘোষনায় মুন্সীগঞ্জে রাজনৈতিক অঙ্গন সরগরম হয়ে উঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সফিউদ্দিন আহমেদ মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পাল্টা আহবাহক কমিটি ঘোষনার পাশাপাশি নবগঠিত আহবায়ক কমিটিকে মুন্সীগঞ্জে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করেছে পাল্টা আহবাহক কমিটির নেতৃবৃন্দ। এদিকে কমিটি বাতিলের দাবী জানিয়ে জেলা বিএনপির পাল্টা আহবায়ক কমিটি কেন্দ্রীয় ঘোষিত নবগঠিত আহবায়ক কমিটিকে মুন্সীগঞ্জে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করায় জেলার সর্বত্র তৃনমূল বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে।

৮০ ও ৯০ দশক ছাত্রদলের সাবেক নেতৃবৃন্দ পরবর্তী সময়ে বিএনপির গুরুত্বপূর্ন পদের দায়িত্ব পালন করলেও জেলা বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটিতে তাদের রাখা হয়নি। এর প্রেক্ষিতে ছাত্রদলের সাবেক নেতৃবৃন্দ সংবাদ সম্মেলন করে ২৬ সদস্যের পাল্টা কমিটি ঘোষনা করেছে।

লিখিত বক্তব্যে জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও সরকারি হরগঙ্গা কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি মো. রফিকুল ইসলাম মাসুম বলেন, ২০১৭ সালে আব্দুল হাইকে সভাপতি ও কামরুজ্জামান রতনকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা বিএনপির ৭ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ৫ বছর অতিবাহিত হলেও সুপার সেভেনের ওই কমিটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে ব্যর্থ হয়েছে। অথচ সমপূর্ণ ব্যর্থ হওয়া সেই সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে যথাক্রমে আহবায়ক ও সদস্য সচিব করে গত ২৫ আগষ্ট কেন্দ্রীয় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত ৫৮ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নবগঠিত আহবায়ক কমিটিতে বিএনপির রাজপথের লড়াকু সৈনিক জেলা ছাত্রদলের সাবেক ছাত্রনেতৃবৃন্দকে রাখা হয়নি।

জেলা ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাইদুর রহমান বক্তব্যকালে জেলা বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটিকে মুন্সীগঞ্জে অবাঞ্ছিত ঘোষনা করেন এবং রফিকুল ইসলাম মাসুমকে আহবায়ক ও মিয়া মো. বাবুল সরকারকে সদস্য সচিব করে জেলা বিএনপির ২৬ সদস্যের পাল্টা আহবায়ক কমিটি ঘোষনা করেন। তিনি বলেন, পাল্টা এ কমিটিতে ৪ জন যুবদলের ও ৭ জন বিএনপির নেতাসহ ছাত্রদলের সাবেক নেতৃবৃন্দ ঠাঁই পেয়েছে। ঘোষিত এই কমিটি অনুমোদনের জন্য বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে দাখিল করা হবে জানান নেতৃবৃন্দ।

জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান শ্যামলের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন-ছাত্রদলের জেলা সাবেক সভাপতি ও সরকারি হরগঙ্গা কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস কাজী আবু সুফিয়ান বিপ্লব। জেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও সরকারি হরগঙ্গা কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি মো. রফিকুল ইসলাম মাসুম লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মো. সাইদুর রহমান, জেলা ছাত্রদল ও জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি ও সরকারি হরগঙ্গা কলেজ ছাত্র সংসদের তিনবারের সাবেক ভিপি তারিক কাশেম খান মুকুল, সরকারি হরগঙ্গা কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি মিয়া মো. বাবুল সরকার প্রমুখ।

Comments are closed.

%d bloggers like this: