মুন্সীগঞ্জে শীর্ষ সন্ত্রাসী’ রাসেল বাহিনীর প্রধান রাসেল কারাবন্দি অবস্থায় মৃত্যু 

41

তুষার আহাম্মেদ: গজারিয়া শীর্ষ সন্ত্রাসী ও রাসেল বাহিনীর প্রধান রাসেল সরকার (৩৮) কারাবন্দি অবস্থায় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (৩১ মে) দুপুর একটার দিকে মারা গেছেন। রাসেল সরকারের মামা আলম খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আলম খান জানান, বি. আলম হত্যা মামলায় আটক হওয়ার পর ঢাকা কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ছিল রাসেল। ডায়াবেটিকসসহ বিভিন্ন শারীরিক জটিলতায় ভুগছিল সে। এর মধ্যে সোমবার (৩১ মে) সকালে সেখানে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তার ব্রেন স্ট্রোক ধরা পড়লে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর একটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

গজারিয়া থানা সূত্রে জানা গেছে, রাসেল সরকারের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা, অস্ত্র, মাদক, চাঁদাবাজি মামলা সহ অন্তত ১৭টি মামলা রয়েছে। সর্বশেষ সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ নেতা বি. আলম হত্যা মামলায় আসামি হয়ে কারাগারে বন্দি ছিল সে।

জানা যায়, গত বছরের ০৫ মার্চ, ইমামপুর ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামে সন্ত্রাসীরা রাসেল বাহিনীর হামলায় সড়ক পরিবহন শ্রমিক লীগ গজারিয়া উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বি. আলমসহ ৯জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায়ায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় বি. আলম।

মামলার বাদী নিহত বি. আলম মোল্লার ছোট ভাই ইমন আহমেদ সবুজ মোল্লা বলেন, মামলায় ১৩জন নামীয় আসামির মধ্যে রাসেল ছিল এক নাম্বার আসামী।

Comments are closed.

%d bloggers like this: