লকডাউনের ৬ষ্ঠ দিন শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরিতে জীবন ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি

লকডাউনের ৬ষ্ঠ দিন শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরিতে জীবন ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি

23
লকডাউনের ৬ষ্ঠ দিন শিমুলিয়া-বাংলাবাজার ফেরিতে জীবন ঝুঁকি নিয়ে পদ্মা পাড়ি
তুষার আহাম্মেদ- লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ৬ষ্ঠ দিনেও শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটের ফেরিতে যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। রোববার সকাল থেকে ফেরিতে ঢাকা ও দক্ষিনবঙ্গগামী উভয়মুখী হাজার হাজার যাত্রী পারাপার হচ্ছে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে।
এদিকে সোমবার থেকে কঠোর লকডাউনের ঘোষণায় বিগত কয়েকদিনের চেয়ে যাত্রী বেড়েছে দ্বিগুণ। একই সাথে পারাপার হচ্ছে পন্যবাহী ও জরুরি যানবাহন। যা সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। নৌরুটের প্রতিটি ফেরিতেই অল্প সংখ্যক যানবাহনের সাথে যাত্রী ছিলো হাজারো। বেলা বাড়ার সাথে সাথে যাত্রীদের ভিড় বাড়ছে। শুধু মাত্র পণ্যবাহী ও জরুরি যানবাহন পারাপারের কথা থাকলেও ফেরিতে ব্যাক্তিগত গাড়ি পারাপার হতেও দেখা গেছে।
এ বিষয়ে বিআইডাব্লিউটিসি শিমুলিয়া ঘাট সহকাকি ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শাফায়েত আহমেদ জানান, নৌরুটে বর্তমানে ১৫টি ফেরি সচল রয়েছে। সকাল থেকে যাত্রীদের কিছুটা ভির রয়েছে। তবে গাড়ির তেমন চাপ নেই। লকডাউনের নিয়ম অনুযায়ী লকডাউনের আওতামুক্ত গাড়ি পারাপারের কথা থাকলেও যাত্রীরা ঘাটে আসছে। যাত্রী নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব আমাদের নয়। জোর করে প্রতিটি যাত্রীরা ফেরিতে উঠে যায়।
মাওয়া ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ জাকির হোসেন জানান, লকডাউনের নির্দেশনা মানার জন্য আহ্বান জানানো হচ্ছে। কিন্তু যাত্রীরা বিভিন্নভাবে ঢাকা থেকে ঘাটে আসছে। আবার বাংলাবাজার ঘাট থেকে আসা যাত্রীরা ঢাকা যাওয়ার চেষ্টা করছে।

Comments are closed.

%d bloggers like this: