Ultimate magazine theme for WordPress.

সাইবার প্রতারক থেকে সাবধান। একাউন্ট হ্যাক করে ৪০৬২৬ টাকা লুট

43

কাজী বিপ্লব হাসান : সাইবার প্রতারক থেকে সাবধান। মুন্সীগঞ্জের সাংবাদিকের নগদ একাউন্ট হ্যাক করে ৪০৬২৬ টাকা লুট।
ঘটনা বিবরনের জানা যায় যে, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভাস্থ জগধাত্রী পাড়ার ইউএনবি প্রতিনিধি কাজি শিল্পীর নগদ একাউন্ট নং ০১৯২৭১৪৪২৭৮ হ্যাক করে গত ১১ ইং মে রাত ৯ টা থেকে রাত ১১:৪৯ পর্যন্ত মোবাইল নং- ০১৭৬৭৫৫৬০১০, ০১৮৮৫৬৪৭২৪০, ০১৮৭৭৭৩৮০৬০, ০১৬৪৭৭৭৩৩৩১, ০১৮৫২৫১২০৬২, ০১৩১৫৩০২৮৮৬, ১০৮৪১৩৬২৫৭৪, ০১৮১৪৫৮২৭১৬, ০১৮৬৮২০৮৬৬২, ০১৮৮৫৬৪৭২৪৬ এই নাম্বারগুলো দিয়ে মোট ৪০৬২৬ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।
ঘটনার শিকার কাজী শিল্পী জানান ঢাকার মোহম্মদপুরে তাদের একটি বাড়ি রয়েছে এবং করোনার কারনে তিনি মুন্সীগঞ্জে অবস্থান করায় মোহাম্মদপুরস্থ কাজি নিবাসের দ্বিতীয় তালার ভাড়াটিয়া গফুর মোল্লা ওরফে ইমরান গ্রীন, পিতা মৃত আমজাদ মোল্লা, সাং সুলতানপুর, উপজেলা: রাজবাড়ী, জেলা ফরিদপুর। কাজি শিল্পীকে নগদের একাউন্ট খোলার জন্য প্ররোচিত করে বলে এটা সরকারি এখানে টাকা রাখলে ব্যাংক এর মত লাভ পাওয়া যায়, টাকা উত্তোলন খরচ ও কম, যখন খুশী টাকা উঠানো যায় এবং এর মাধ্যমে সব ধরনের বিল পরিশোধ করা যায়। আমি ও আমার ভাই ও স্ত্রী এর এজেন্ট। আপনার কোন সমস্যা হলে তা আমরা সমাধান করতে পারব। এর পর সে করোনার কারনে সপরিবারে কাজি নিবাস থেকে দেশের বাড়িতে চলে যায় এবং সে জানায় নগদের একাউন্ট না খুললে লক ডাউন এর কারনে ব্যাংকে গিয়ে বাড়ি ভাড়া পরিশোধ করা আমার পক্ষে সম্ভব না। তাই কাজি শিল্পী বাধ্য হয়ে নগদের এপস ডাউনলোড করে একাউন্ট খোলে যার নাম্বার ০১৯২৭১৪৪২৭৮। এর পর ইমরান উক্ত একাউন্টে ৯ হাজার টাকা পাঠায় এবং কাজি শিল্পী অন্যান্য ভাড়াটেদেরকে ও উক্ত নগদ নাম্বারে ভাড়ার টাকা পাঠাতে বললে তারাও উক্ত নগদ একাউন্টে টাকা পাঠান এবং উক্ত নগদ একাউন্টে সর্বমোট ৮৫৯৩৫ টাকা জমা হয়। অতঃপর গত ১১ ই মে ২০২০ উক্ত নগদ একাউন্ট হ্যাক করে উপরে উল্লেখিত মোবাইল নাম্বারের মাধ্যমে রাত ৯ টা থেকে ১১:৪৯ পর্যন্ত মোট ৪০৬২৬ টাকা তুলে নেয়, এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় ১২ই মে ২০২০ একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়। যার নং ৩৮৫।
এরপর ওই দিন রাত ১০:৪০ এ ০১৬৭ নাম্বার থেকে কল দিয়ে বলে আমি নগদের কাস্টমার কেয়ার থেকে মৃত্যঞ্জয় বলছি ১ দিন আগে আপনি নগদের কাস্টমার কেয়ারে অভিযোগ করেছিলেন যে আপনার নগদ একাউন্ট হ্যাক করে ৪০৬২৬ টাকা উঠানো হয়েছিল, আমরা বিষয়টি info.nagad.com.bd থেকে জানতে পারি এবং আমরা উক্ত দুষ্কৃতিকারীদের কাছ থেকে টাকা উদ্ধার করেছি এবং এখনই আপনাকে উক্ত টাকা ফেরত দিব আপনি লাইনে থাকুন। কিন্তু সন্দেহ হওয়ায় কাজি শিল্পী লাইন কেটে দেয় এবং বিষয়টি মুন্সীগঞ্জ সদর থানাকে অবগত করে।

Comments are closed.