সিরাজদিখানে পূর্বশত্রুতার বিরুধে ৭ জনকে পিটিয়ে জখম

সিরাজদিখানে পূর্বশত্রুতার বিরুধে ৭ জনকে পিটিয়ে জখম

26

তুষার আহাম্মেদ- মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখানে পূর্বশত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষ লোকজনের হামলায় ১০ জনকে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শনিবার সন্ধায় (০৭ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার লতব্দী এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন তোতা মিয়া (৫২), সোলেমান মোল্লা(৬৭),সাত্তার মোল্লা(৬২),মনির মুন্সী(৬০), রুহুল আমিন (৬০),বাদশা মিয়া (৪৮), ইয়াছিন (৪৫),নুরে আলম (৩৫),রহমত আলী (৪০)। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে গুরতর অবস্থা তোতা মিয়াকে রাতেই  উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়। অপর ৯ জনের মধ্যে সোলেমান ও মনির মুন্সীকে সিরাজদিখান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী তোতা মিয়া বাদী হয়ে প্রতিপক্ষের ১২ জন মোঃ আমির (৫০),মোঃ নাঈম (৩০),মোঃ শরিফ(৩০), মোঃ জমির (৪০),মোঃ আকাশ (২২),মোঃ রিমন(২০),মোঃ রিফাত(২১),মোঃ জাফর(২২),মোঃ মিলন(২),তাইজুল (২২),মোঃ ফয়সাল (২০),মোঃ সেলীম (৪৫)  এর বিরুদ্ধে সিরাজদিখান গত শনিবার রাত সারে ১০ টায় সিরাজদিখান থানায়  লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

এজাহার ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানায়, পূর্বশত্রুতার জেরে লতব্দী উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্রীজের  এলাকার মৃত বাচ্চু মিয়ার ছেলে মোঃ আমির হোসেন গংদের সাথে প্রতিবেশী মোঃ তোতা মিয়া গংদের পূর্ব বিরোধ চলে আসছিলো। বিরোধকে কেন্দ্র করে শনিবার বিকালে বেআইনী জনতাবদ্ধে দেশয়ি অস্ত্র শস্ত্রের সজ্জিত হয়ে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করতে তোতা মিয়া ও সোলেমান  এগিয়ে আসলে তাদেকে ইট ছুড়ে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহতদের উদ্ধার করে সিরাজদিখান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্ষে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত ডাক্তার ১জনকে ঢাকায়,  ২জন ভর্তি রাখে ও বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছে।

মোঃ তোতা মিয়া জানান, দীর্ঘদিন যাবত প্রতিপক্ষের লোকজন আমাদের জায়গা দখলে নেওয়ার জন্য নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলো। এ নিয়ে তাদের সাথে পূর্ববিরোদের চলছিলো। এর জের ধরেই হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিত হামলা চালানো হয়েছে। থানায় অভিযোগ করেছি, আমরা এর বিচার চাই। এ বিষয়ে প্রতিপক্ষের মোঃ আমিরের সাথে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে সিরাজদিখান থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোঃ বোরহান উদ্দিন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Comments are closed.

%d bloggers like this: